5:31 am - Saturday August 19, 2017

পুতুলের সাহায্যে ‌ধর্ষণের বর্ণনা দিলো ৫ বছরের শিশু!

আদালতে বার্বি পুতুলের মধ্য দিয়ে ‌যৌন নির্যাতনের ঘটনা বর্ণনা করতে বলা হল ৫ বছরের শিশুকে। ভারতের দিল্লির উচ্চ আদালতে বিচারক এরকমই নির্দেশ দিল। ৫ বছরের শিশুর সঙ্গে কী ধরনের আচরণ হয়েছে তা মুখে ঠিক ভাবে না বলতে পারলেও একটা পুতুল দিলে তা খেলার ছলে সে আসল ঘটনা জানিয়ে দিল আদালতে উপস্থিত সবাইকে।

সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি পুতুলটির গোপনাঙ্গ দেখিয়ে আদালতে জানায় তার সঙ্গে কী ঘটেছিল। আক্রান্ত শিশুকে অভিযোগকারীর আইনজীবীর ‘‌নোংরা’‌, ‘‌লজ্জাজনক’‌, ‘‌কুরুচিকর’ ‌দ্বিধাগ্রস্ত প্রশ্নগুলি থেকে বাঁচাতেই আদালত এ ধরনের নির্দেশ দেন।

ট্রায়াল কোর্টের বিচারক এ ধরনের অভিনব পদ্ধতিতে শিশুটিকে পুতুল খেলার ছলে দেখাতে বলে তার সঙ্গে কী ঘটনা ঘটেছে। শিশুটির বর্ণনার ওপর ভিত্তি করেই ২৩ বছরের অভিযুক্ত যুবকের সাজা ঘোষণা করা হয়।  বিচারপতি এস পি গর্গ অভিযুক্তের আবেদন খারিজ করে জানায়, ৫ বছরের শিশুর অধিকার রয়েছে পুতুলের মধ্য দিয়ে দেখানো অভিযুক্ত তার সঙ্গে কী আচরণ করেছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, শিশুটির গোপনাঙ্গে কোনও নখের আঁচড় পাওয়া যায়নি, কিন্তু তা বলে কোনও ঘটনা ঘটেনি তা অনুমান করে নেওয়া ঠিক নয়। এমনকী শিশুটির মা তার সম্মান রক্ষার জন্য শিশুটির অভ্যন্তরীণ মেডিক্যাল পরীক্ষাও করাতে দেননি।

২০১৪ সালের জুলাই মাসে শিশুটি তার ১০ বছরের ভাইয়ের সঙ্গে স্কুলে যাচ্ছিল। সেই সময় ২৩ বছরের হান্নি নামের এক ব্যক্তি শিশুটির ভাইকে ১০ টাকা দিয়ে দোকান থেকে কিছু কিনে আনতে বলে। সেই সুযোগে শিশুটিকে অপহরণ করে পালায় হান্নি। উত্তর–পশ্চিম দিল্লির নারেলাতে ওই শিশুটিকে নিয়ে গিয়ে তার ওপর যৌন নির্যাতন করা হয়। যৌন নির্যাতনের আগে তাকে নগ্ন করে মারধরও করে অভিযুক্ত। ঘটনার পর অভিযুক্ত শিশুটিকে বাড়ির কাছে ফেলে রেখে দিয়ে যায়। এক প্রতিবেশী ওই শিশুটিকে কাঁদতে দেখে। তাকে স্কার্ট ছাড়া রাস্তায় দেখে খুব অবাক হয়। শিশুটিকে বাড়িতে পৌঁছে দেন ওই প্রতিবেশী। প্রথমে শিশুটি এতটাই আতঙ্কে ছিল যে তার বাড়িতে কিছু বলেনি, পরে সে তার মাকে সব জানায়।


Filed in: ক্রাইম ওয়ার্ল্ড