4:02 am - Thursday May 24, 2018

কুমিল্লায় তাণ্ডব চালিয়েছে কালবৈশাখী ঝড় ! ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি

শুক্রবার আকস্মিক কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে কুমিল্লার মুরাদনগর । শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, সহস্রাধিক গাছপালা ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে।শুক্রবার দুপুরে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ-ঢাকা সড়কের ভল্লব্দী এলাকায় একটি মোটা গাছ উপড়ে পড়ে। ফলে সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া কালবৈশাখীর তাণ্ডবে উপজেলার সাতমোড়া, পায়ব, ভল্লব্দী, সায়ফুল্লাকান্দি, আলীরচর, ঘোড়াশাল, নবীপুর, গকুলনগর, কুলুবাড়ী, বাখরনগরসহ আরো বেশ কয়েকটি গ্রামের দেড় শতাধিক ঘর-বাড়ি ও সহস্রাধিক গাছ-পালা বিধ্বস্ত হয়।

এর মধ্যে সাতমোড়া গ্রামে একটি মসজিদসহ অর্ধ শতাধিক ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। শুশুণ্ডা একটি ও বাখরাবাদ গ্যাসফিল্ডে ২টি বিদ্যুতের খুঁটি বিধ্বস্ত হয়েছে।সাতমোড়া গ্রামের ইসমাইল, আলী আকবর, মুর্শিদ, জামাল, রশিদ, মহসিন, সাদ্দাম, কবির, মানিক, লিল কমল, রাধা, মজিদ, জালাল, খোরশেদ আলম, সমির, বাবুল মোতালেবসহ আরো অনেকের বসত-ঘর বিধ্বস্ত হয়।

এ রির্পোট লেখা   পর্যন্ত মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কে যান চলাচল ও মুরাদনগর উপজেলার সর্বত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।মুরাদনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল কাইয়ুম খসরু বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নিশ্চিত হয়ে উপজেলা পরিষদ থেকে সহায়তা প্রদান করা হবে।

কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কোম্পানীগঞ্জ জোনাল অফিসের ডিজিএম হাবীবুর রহমান বলেন, শুশুণ্ডায় একটি ও বাখরাবাদ গ্যাস ফিল্ড এলাকায় দু’টি বিদ্যুতের খুঁটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়ও বিভিন্নস্থানে বিদ্যুতের ক্যাবলের উপর গাছ ভেঙে পড়েছে। সেগুলো মেরামতের কাজ চলছে, মেরামত শেষে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিতু মরিয়ম বলেন, কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য উপজেলা প্রশাসন থেকে সহায়তা করা হবে। মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কে যান চলাচল ও বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে প্রশাসন, বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়রা কাজ করছে।


Filed in: সারাদেশ