3:38 pm - Monday July 23, 2018

মেয়ের ধর্ষণের ভিডিও পাঠাল মায়ের হোয়াটসঅ্যাপে

ধর্ষণ সমাজের অন্যতম বড় ব্যাধি। কিন্তু বর্তমানে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ এবং তা চারদিক ছড়িয়ে দেওয়ার প্রবণতা নতুন ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে। যেন খাঁড়ার উপর মরার ঘা। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ভারতের নয়াদিল্লির রোহিণী এলাকায়। গেলো দুই মাস আগে ১২ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে এক প্রতিবেশী।

আর সেই দৃশ্যের ভিডিও ধারণ করে রাখে ধর্ষকের দুই বন্ধু। কিশোরী ভয়ে ঘটনাটি কাউকে বলতে সাহস করেনি। কিন্তু এই চুপ থাকাটাই পুনরায় কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে তার এবং পরিবারের জন্য। ধর্ষক ও সহযোগীরা সেই ভিডিও চিত্র নিয়ে আরেক নষ্ট খেলায় মত্ত হয়। রেকর্ডটি নির্যাতনের শিকার কিশোরীর মায়ের কাছে পাঠায়।

মেয়েটির মা নিজের হোয়াটসঅ্যাপ খুলতেই দেখেন সেই অনাকাক্ষিত দৃশ্য। এরপর মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে বেরিয়ে আসে সত্য ঘটনা। মেয়েটি জানায়, গেলো দু’মাস আগে স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারের পাশে পরিত্যক্ত জায়গায় তাকে ধর্ষণ করা হয়। ধর্ষণ করে প্রতিবেশী ব্যান্টি (২৪) নামের এক পরিচিত যুবক। ঘটনার ভিডিও করে রাখে ব্যান্টির দুই বন্ধু। কাউকে জানালে ওই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় দুষ্কৃতিকারীরা। গেলো মঙ্গলবার নির্যাতিতার পরিবার রোহিণী থানায় ব্যান্টি ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা করেন। সে দিনই ব্যান্টিকে রোহিণী অঞ্চলের কালান এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সূত্র: আনন্দবাজার


Filed in: ক্রাইম ওয়ার্ল্ড